স্থগিত হলো ভারতের ‘গো বিজ্ঞান পরীক্ষা’

0
97

‘গো বিজ্ঞান’ নিয়ে পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। এই মর্মে দেশটির সব বিশ্ববিদ্যালয়ে চিঠিও গিয়েছে। তবে এর কিছু উদ্ভট সিলেবাস এবং তথ্যের মাধ্যমে কুসংস্কার ছড়ানো হচ্ছে বলে দেশটিতে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এরপর পরীক্ষাটি স্থগিত করা হয়েছে। কবে নাগাদ পরীক্ষা হতে পারে তার সময়ও জানা যায়নি। খবর টাইমস অফ ইন্ডিয়া।

রোববার(২১ ফেব্রুয়ারি) এক বিজ্ঞপ্তিতে পরীক্ষা স্থগিত করার কথা জানানো হয়।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ভারতে ‘গো বিজ্ঞান পরীক্ষা’ নেওয়ার কথা ছিল। ইতিমধ্যেই তার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন দেশটির প্রায় ৫ লাখ মানুষ। দেশটির প্রায় ৯০০টি বিশ্ববিদ্যালয়কেও সেই নির্দেশ পাঠায় দেশটির ইউজিসি। অনলাইনে গরু বিষয়ক এই সরকারি পরীক্ষা দেয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করতে বলা হয় চিঠিতে। তবে শেষ পর্যন্ত তা হলো না।

এ বিষয়ে দেশটির যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের তুলনামূলক সাহিত্য বিভাগের শিক্ষক স্যমন্তক দাস বলেন, ‘শুধু যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় নয়, দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়কেই এই মর্মে চিঠি পাঠিয়েছে ইউজিসি। কিন্তু যাদবপুরে এই পরীক্ষা হচ্ছে না। অন্যদের কথা আমি জানি না।’

দেশটির আরেক সংবাদ মাধ্যম আনন্দবাজারকে বিশ্ববিদ্যালয়টির বাংলা বিভাগের প্রধান রাজ্যেশ্বর সিংহ বলেন, ‘যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় বিজ্ঞানমনষ্ক, ধর্মনিরপেক্ষ শিক্ষাব্যবস্থা প্রচার করে। রাষ্ট্রের দায়িত্বও সেটাই হওয়া উচিত। সেখানে এ ধরনের একটা বিষয়কে চাপিয়ে দেওয়ার কোনো জায়গা নেই। বিশেষ করে এই সময়ে যখন করোনা পরিস্থিতি চলছে। এ বিষয়গুলো নিয়ে গবেষণা করা অনেক বেশি জরুরি ছিল বলে মনে হয়। তার বদলে এমন একটা বিষয়ের পরীক্ষার নাম করে আসলে একটা দর্শন চাপানোর চেষ্টা হয়েছিল। কিন্তু আপাতত যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে তেমন কিছু হচ্ছে না। সিদ্ধান্ত হয়ে গিয়েছে।’

গরু নিয়ে এই পরীক্ষার আয়োজক দেশটির কেন্দ্রীয় পশুপালন মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ ‘রাষ্ট্রীয় কামধেনু আয়োগ’ কমিটি। তাদের ওয়েবসাইটে ১ ঘণ্টার এই অনলাইন পরীক্ষার ব্যবস্থা করে তারা। তাদের আয়োজিত পরীক্ষার নাম, ‘কামধেনু গো বিজ্ঞান প্রচার-প্রসার পরীক্ষা’।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here