কবর থেকে তরুনীর লাশ তুলে নিয়ে গেছে মিয়ানমারে সেনাবাহিনী

0
49

মিয়ানমারে অভ্যুত্থানবিরোধীদের ওপর নিরাপত্তারক্ষীদের চালানো গুলিতে নিহত তরুণী কায়ল সিনের লাশ কবর থেকে তুলে নিয়ে গেছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। গত বুধবার দেশটির মান্দালয় এলাকায় ১৯ বছর বয়সী ওই তরুণীর মাথায় গুলি লাগলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরদিন ৪ মার্চ ওই তরুণীর লাশ সমাহিত করার পর গতকাল শুক্রবার বিকেলে মিয়ানমারের সৈন্যরা কবর থেকে লাশ তুলে নিয়ে যায় বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

এদিকে গুলিতে ওই তরুণীর মৃত্যুর বিষয়টি অস্বীকার করে আসছে দেশটির সেনাবাহিনী। তাদের দাবি, তার মাথায় গুলি লাগলে তার চেহারা ক্ষত-বিক্ষত হয়ে যেত। আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ওই নারীর মৃত্যুর মূল কারণ অনুসন্ধান করবেন বলে জানানো হয়েছে রয়টার্সের প্রতিবেদনে।

গত মাসেও নেইপিদোতে সেনাবিরোধী বিক্ষোভে পুলিশের গুলিতে এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছিল। কিন্তু ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন দেখিয়ে দেশটির সেনাবাহিনী ওই হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার বিষয়টি অস্বীকার করে। বলা হয়, ওই নারীর মাথায় যে গুলি লেগেছিল তা নিরাপত্তা বাহিনীর নয়।

এদিকে আন্দোলন দমাতে এবার বিভিন্ন শহরে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে মিয়ানমারের জান্তা সরকার। সে সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের ওপর দমনপীড়ন অব্যাহত রেখেছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। এরই ধারাবাহিকতায় এবার স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর নেমে এসেছে নির্যাতনের খড়গ।

গত মাসে শুরু হওয়া অন্দোলনে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫৫ জনে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যেই জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার অংশ হিসেবে সেনানিয়ন্ত্রিত ৫টি চ্যানেল বন্ধ করে দিয়েছে ইউটিউব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here