মালয়েশিয়ায় করোনা ডি৬১৪জি নতুন ‘স্ট্রেইন’ নিয়ে আতঙ্ক

0
30
3D illustration of Coronavirus, virus which causes SARS and MERS, Middle East Respiratory Syndrome

দিনকে দিন যেন ভয়ানক হয়ে উঠছে করোনাভাইরাস। দিন দিন ঘাতক হচ্ছে কোভিড–১৯। এবার মালয়েশিয়ায় এমন এক করোনাভাইরাসের সন্ধান মিলল, যার সংক্রমণের হার ১০ গুণ বেশি। ডি৬১৪জি (ডিসিক্সওয়ানফোরজি) নামের নতুন ‘স্ট্রেইন’ নিয়ে আতঙ্কের কথা বলা হচ্ছে। তবে দেশটির বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটা নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।

এক ভারতীয় রেস্তোরাঁর মালিক থেকে সংক্রমিত হয়েছেন প্রায় ৪৫ জন। তিনি অনেক দিন আগে ভারত থেকে ফেরার পর ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন মানেননি। এ জন্য তাঁর পাঁচ মাসের কারাবাস হয়েছে। যে ৪৫ জন সংক্রমিত হয়েছেন, তাঁদের মধ্যে তিনজনের শরীরে এ নতুন চরিত্রের করোনাভাইরাসের উপস্থিতি মিলেছে বলে জানা গেছে।

মালয়েশিয়ান ইনস্টিটিউট ফর মেডিকেল রিসার্চের ডিরেক্টর জেনারেল নূর হিসাম আবদুল্লাহ জানিয়েছেন, তিন রকমের কেসে মিউটেশনটি দেখা গেছে। ভারত থেকে আসা স্থায়ী বাসিন্দাদের মধ্যে একরকমের মিউটেশন দেখা গেছে। রেস্তোরাঁর মালিকদের মধ্যে দেখা গেছে আবার ফিলিপাইন থেকে আসা বাসিন্দাদের মধ্যে দেখা গেছে এই মিউটেশন। ভাইরাসের এমন চরিত্র বদলের ফলে ভ্যাকসিনের আবিষ্কার ও প্রভাব নিয়ে প্রশ্ন থেকেই গেল। ভাইরাসের প্রকৃতি বদলে গেলে ভ্যাকসিন আবিষ্কার হলে তা কতটা কার্যকরী হবে, তা আলোচনাসাপেক্ষ। এ বছরের জুলাইয়ে এ ধরনের ভাইরাসটির সন্ধান মেলে।

রোববার নূর হিসাম আবদুল্লাহ তাঁর ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, সাধারণ মানুষকে এবার আরও সতর্ক ও সচেতন হতে হবে। না হলে কোভিড–১৯–এর বিরুদ্ধে আমরা ব্যর্থ হবে।

করোনার এ ঘাতক রূপের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে আরও বেশি করে মানুষকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছে মালয়েশিয়া সরকার। কোনো রকম জমায়েত করতে দেওয়া হচ্ছে না। এই ভয়ংকর স্ট্রেইনে সংক্রমণ শরীরে অন্য অনেক রোগ বাসা বাঁধতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

তবে দেশটির বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটা নিয়ে এখনই বেশি আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। কর্তৃপক্ষের এ অবস্থা মোকাবিলার জন্য ক্ষমতা আছে।

মালয় ইউনিভার্সিটির রোগতত্ত্ব বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক আওয়াঙ্ক মাহমুদ বলেন, এটা এখনো প্রমাণিত নয় যে ডি৬১৪জি খুব বেশি আতঙ্কের কারণ হবে। তাঁর বিশ্বাস, এটি জনস্বাস্থ্যর ওপর বেশি প্রভাব ফেলতে পারবে না। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, এর আগে ডি৬১৪ ও জি৬১৪ বেশি ক্ষতির কারণ হতে পারেনি।

গত শনিবার মালয়েশিয়ায় নতুন করে আরও ২৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে ৯ হাজার ১৭৫ জন শনাক্ত হলেন। দেশটিতে মোট মৃত ১২৫ জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here