বাংলাদেশের প্রশংসায় গ্রেস মেং

0
98

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে বাংলাদেশের প্রশংসায় মার্কিন কংগ্রেসওম্যান গ্রেস মেং। সেই সঙ্গে নিউইয়র্ক স্টেট সিনেটর জন ল্যু এবং কুইন্স বরো প্রেসিডেন্ট ডোনাভান রিচার্ডসও বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসা করেছেন। পৃথক ভিডিও বার্তায় তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অভাবনীয় উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন। একই সঙ্গে মুজিববর্ষ উপলক্ষে তারা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিও গভীর শ্রদ্ধা জানান। বাংলাদেশি-আমেরিকানসহ সারা বিশ্বের বাঙালিদের প্রতিও তারা আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ২৬ মার্চ নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কন্স্যুলেটের ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে এসব বক্তব্য উপস্থাপন করা হবে বলে জানান কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা। কংগ্রেশনাল বাংলাদেশ ককাসের প্রভাবশালী সদস্য নিউইয়র্কের কুইন্স থেকে নির্বাচিত কংগ্রেসওম্যান গ্রেস মেং তার বক্তব্যে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ককে আরও সুদৃঢ় করার লক্ষ্যে কাজ করে যাবেন বলে উল্লেখ করেন। গ্রেস মেং নিউইয়র্কে বাংলাদেশি-আমেরিকানদের স্বার্থ সুরক্ষায় তার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করে বলেন, তিনি বাংলাদেশের একজন প্রকৃত বন্ধু। নিউইয়র্ক স্টেটের রাজধানী আলবেনি থেকে পাঠানো ভিডিওবার্তায় স্টেট সিনেটর জন ল্যু জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। দুই বছর আগে জাতির পিতার বাসভবন সফরের স্মৃতিচারণা করে সিনেটর জন ল্যু পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুসহ সব শহীদের নৃশংস হত্যাকান্ডকে ইতিহাসের বর্বর অধ্যায় হিসেবে উল্লেখ করেন। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে সব বাংলাদেশিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি নিউইয়র্কে বসবাসরত বাংলাদেশি-আমেরিকানদের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here